নাইট শিফট জব – মোবাইল কোম্পানিতে – HSC/ SSC – ৪৪০০০ পর্যন্ত সেলারি – এছাড়া যাতায়াত এবং রাতের খাবার এবং চা/ কফি ফ্রি

রাতের শিফটে অনেক কাজ আছে। এসব কাজ তেমন পরিচিতি পায়না। কারন এসব কাজ সারারাত জেগে থেকে করতে হয়। অনেকেই সারারাত ডিউটি করে কুলিয়ে উঠতে পারেন না। আমরা ছোটবেলা থেকেই রাতে ঘুমিয়ে অভ্যস্থ। অনেকে হয়তোবা আজকাল অনেক রাত পর্যন্ত জেগে জেগে মোবাইল টেপাটেপি করতে করতে ৩ টা ৪ টার আগে ঘুমাতেই পারেনা। কিন্তু ৩টা ৪ টা পর কিন্তু সে ঠিকই ঘুমায়। শুধু তাই নয়, শুয়ে শুয়ে মোবাইলে এটা ওটা দেখতে দেখতে আরামসে ৩ টা ৪ টা বাজানো আর কাজ করা এক জিনিস নয়। আর তাছারা রাতের শিফটে কাজের ক্ষেত্রে আপনার কমপক্ষে সকাল ৬ টা থেকে ৮ টা পর্যন্ত টানা কাজ করতে হবে। এই বাইরে আপনি ওয়ার্ম আপ করার জন্য চা/ কফি খাবার টাইম ছাড়া আর তেমন কোন ছাড় পাবেন না।

মোবাইল কোম্পানিতে রাতের কাজ

রাতের কাজের ক্ষেত্রে মোবাইল কোম্পানিতে কাজের ব্যপারটা সবচেয়ে ভাল এবং বেশ জনপ্রিয়। মোবাইল কোম্পানি বলতে মোবাইল অপারেটরের কথা বলা হচ্ছে। যেমন ধরা যাক, গ্রামিনফোন, টেলিটক, বাংলালিংক সহ অন্যান্য যেসব মোবাইল অপারেটর আছে তাদের কথা বলা হচ্ছে। আপনারা যারা মোবাইল ইউজ করেন তারা একবার হলেও মোবাইল কাস্টমার কেয়ারে ফোন দিয়েছেন। আপনি কাস্টমার কেয়ারে ফোন দেবার পর অপার থেকে যিনি কলটা রিসিভ করতেন তিনি কিন্তু সেই মোবাইল অপারেটরের একজন সম্মানিত কর্মকর্তা। লক্ষ্য করে থাকবেন, রাতেও যদি আপনি কল দেন, তখনো কেউ না কেউ আপনার ফোনটি রিসিভ করবেই। এমনকি রাতের ৩ টা ৪ টা ৫ টা যে সময়ই কল দেননা কেন অন্তত একজনকে আপনি পাবেনই। সেখানে ছেলারাও যেমন রাতের শিফটে ফোন ধরেন তেমনি মেয়েরাও ধরেন। সো, এটা নিশ্চিত যে, ছেলেমেয়ে নির্বিশেষে সবাই নাইট শিফটে কাজ করতে পারেন।

ব্যাংকে নাইট শিফতে কাজ

ব্যাংকেও দেখবেন আপনি রাতের বেলায় কোন ব্যাংকিং কাজের জন্য কল করলে সেখানে পুরুষ কিংবা মহিলা কেউ একজন আপনার ফোনটি রিসিভ করবেন। সো, ব্যাংকেও আপনি নাইট শিফটের কাজ করতে পারেন নির্দিধায়।

অন্যান্য প্রতিষ্ঠনে নাইটে কাজ

ব্যাংক বা মোবাইল অপারেটের মতই অন্য আরো হাজার খানেক প্রতিষ্ঠন আছে যারা রাতের শিফটে নান ধরনের কাজের অফার দিয়ে থাকেন।

এসব রাতের শিফটে বা নাইট শিফট কাজের বর্তমার নতুন বিজ্ঞপ্তিগুলো দেখতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন