এই বক্সে Apply Now লিখে খুজতে হবে নইলে পাবেন না

নাইট শিফটে ২৫০০০ থেকে ৩০০০০ বেতনে জব দিচ্ছে ঢাকার প্রায় ২৫ থেকে ৩০ টি কল সেন্টার।



পড়াশুনার পাশাপাশি প্রায় ৯০ শতাংশ ছাত্রছাত্রীর কাজের দরকার হয়। অনেকেই কাজ পায় আর অধিকাংশই হা পিত্যেশ করতে থাকে কাজের জন্য কিন্তু কাজের টিকিটি পর্যন্ত দেখা পায়না। ছাত্রছাত্রীদের কাজ না পাবার মুল কারন হচ্ছে, তাদের দরকার হয়, বিশেষায়ীত কাজ। বিশেষায়ীত কাজ মানেই হচ্ছে, পার্ট টাইম কাজ। ছাত্রছাত্রীদের পার্ট টাইম কাজের দরকার হয় কারন তারা ফুল টাইম কাজ পেলেও করতে পারেনা। কারন তাদেরকে ক্লাশ করতে হয়ে প্রায় সপ্তাহে ৫ থেকে ৬ দিন এবং প্রতিদিন প্রায় ৬ থেকে ৮ ঘন্টা। শুধু তাই নয়, ক্লাশের সময় এমনভাবে ভার্সিটিগুলো মেইন্টেইন করে যে, কিছু জব পাওয়া গেলেও সেতা স্টুডেন্টরা করতে পারেনা কারন ঠিক তখনি ক্লাস থাকে। এতসব সমস্যার মধ্যেও অনেকেই পার্ট টাইম কাজের যোগার ঠিকই করে নেয় এবং ক্লাস এবং কাজ একসাথে সমতালে মেইন্টেইনও করতে পারে তারা। যারা এটা পারে তারা আসলেই লেজেন্ড। এমন টাইপের কাজের জন্য কল সেন্টার ছাড়া ঊপায় নেই। একমাত্র কল সেন্টার গুলোতেই রাতদিন ২৪ ঘন্টা কাজ হয়, ফলে যেকেউ যেকোন টাইমে প্রেফারেবল টাইমে কাজ করতে পারে। Apply করে এমন পার্ট টাইম জবের জন্য এপ্লাই করে জয়েন করতে পারো তুমিও। ঢাকায় আছে অসংখ্য কল সেন্টার। সেসব কল সেন্টারে খোজ নিয়ে জয়েনিং নিয়ে নিতে পারেন সহজেই।  যেকোন কল সেন্টারে জয়েনিং প্রকৃয়া খুবই সহজ এবং স্ট্রেইটফরোয়ার্ড। আপনি কল সেন্টারের সাথে যোগাযোগ করবেন। তারা আপনাকে ডেকে নিয়ে ইন্টার্ভিউ নিবে। ইন্টার্ভিউতে যদি প্রমান করতে পারেন যে আপনি উপযুক্ত তাহলে তারা আপনাকে নিয়ে নেবে। বাংলা কল সেন্টারে কাজের জন্য বাংলা উচ্চারন ষ্পষ্ট থাকলেই জয়েনিং পাওয়া যায়। আর ইংরেজির ক্ষেত্রে ইংরেজির দক্ষতা থাকতে হয়। ঘুরে দেখুন কল সেন্টারগুলো। চাকরি পাবেন নিশ্চিত যদি কথা বলার দক্ষতা আছে বলে মনে করেন। Best Wishes😊

Comments

Post a Comment

প্রশ্ন থাকলে লিখুন